32, Masterda Sarani Rd, Dum Dum, Kolkata 79 consult.debraj@gmail.com

Importance Of Astrological Consultation And How Do Astrological Remedies Really Work

Importance Of Astrological Consultation And How Do Astrological Remedies Really Work

Astrological Consultation এর উদ্দেশ্য

এই জন্মে আমরা মানুষ হিসেবে জন্মগ্রহণ করেছি। আমরা সকলেই সামাজিক জীব। এই সমাজে আমরা সকলেই চাই আমাদের জীবনটা সুস্থ সুন্দর ভাবে উপভোগ করতে। আমরা সকলেই চাই নিজের নিজের মত করে এই জীবনে প্রতিষ্ঠা পেতে। মানুষের জীবনচক্রে জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত অনেকগুলি ধাপ থাকে, সেই ধাপগুলো অতিক্রম করে এগিয়ে চলার নাম’ই জীবন। মানব জীবনে প্রতিটা ধাপেই নির্দিষ্ট কিছু কর্ম আমাদের প্রত্যেককেই পালন করতে হয়। শিক্ষা, কর্ম, বিবাহ, সন্তানের জন্ম সবই আমাদের জীবনের অঙ্গ। আমরা সমাজবদ্ধ জীব হবার দরুণ আমাদের সকলের মধ্যেই ষড়রিপু কম-বেশি প্রভাববিস্তার করে আছে। সেই কারণে আমরা আমাদের প্রতিটি কর্মের ক্ষেত্রেই ফলের প্রত্যাশা করি। আমাদের সকলের মধ্যেই চাহিদা – কামনা – বাসনা – আকাঙ্খা সবই রয়েছে। তার সাথে আছে ইচ্ছাপূরণ না হবার কষ্ট, কাঙ্খিত জাগতিক বস্তু না পাওয়ার দুঃখ অথবা পেয়েও তা হারানোর যন্ত্রণা। আছে রাগ, ক্ষোভ, হিংসা, বিদ্বেষ। আমরা মোহাচ্ছন্ন, তাই জাগতিক ভোগসুখ লাভের আকাঙ্খাই আমরা করে থাকি। এই সব কিছুই আমাদের জীবনের সাথে অঙ্গাঙ্গী ভাবে জড়িত। আজ এই একবিংশ শতকে মানুষ, মানুষের সাথেই লড়াইতে মত্ত। এ লড়াই টিকে থাকার লড়াই। যাকে আমরা Competition বলি। তাই স্বাভাবিক স্বভাববশতই আমরা আমাদের এই জীবনে পাওয়া এবং না পাওয়ার হিসেব করি। তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই আমাদের জীবনে সমস্যাও কিছু কম নয়। আচ্ছা আমরা কোনোদিন ভেবে দেখেছি যে ঠিক কি কি কারণে আমরা জ্যোতিষীর কাছে যাই এবং How do Astrological Remedies work? শরীর থাকলে যেমন রোগ হবে, মন থাকলে সে যেমন দুঃখ – আনন্দ পাবে, ঠিক তেমনই জীবন থাকলে সেই জীবনে সমস্যাও থাকবে। তা সে যে কোনো বিষয়েই হতে পারে, যেমন ধরুণ,

পড়াশোনা সংক্রান্ত সমস্যা – যার মধ্যে পড়াশোনায় অমনোযোগিতা, অসৎ বন্ধু সংসর্গে বিপথে চালিত হওয়া, কাঙ্খিত ফললাভ না হওয়া, পরীক্ষায় অকৃতকার্য হবার ফলে বছর নষ্ট হওয়া ইত্যাদি।

কর্মক্ষেত্রে সমস্যা – চাকরি না পাওয়া, চাকরি পেয়ে হারানো, কর্মক্ষেত্রে শত্রুতা, Promotion পাওয়ার ক্ষেত্রে বাধা, Transfer বা চাকরি পরিবর্তন, Appraisal এ সমস্যা, যোগ্যতা অনুযায়ী সন্মান বা Position না পাওয়া, বা ব্যবসা করলে ব্যবসা ঠিক মতো না চলতে পারে, Loss in business, ব্যবসায় শত্রুতা, Proper contacts বা Connections না পাওয়া ইত্যাদি অনেক কারণে চাকরি বা ব্যবসাক্ষেত্রে সমস্যার সম্মুখীন হয় বহু মানুষ।

প্রেমজ সম্পর্ক বা বিবাহের ক্ষেত্রে সমস্যা – অসৎ উদ্দেশ্যপূর্ণ ব্যক্তির সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়া, প্রেমজ সম্পর্ক বিচ্ছেদ, বিয়ে না হবার যোগ, প্রচুর সম্বন্ধ এসেও বিয়ে না হওয়া, বিয়ে ঠিক হয়েও তা ভেঙ্গে যাওয়া, বিয়ের পর দাম্পত্য অশান্তি, Separation, Divorce, Second Marriage ইত্যাদি বহুবিধ সমস্যা।

Child Birth related Problems – সন্তান না হওয়া, Delayed Child Birth, Misscarriage, সন্তান জন্মানোর পর মারা যাওয়া ইত্যাদি বহুবিধ সমস্যার সম্মুখীন মানুষ হয়ে থাকে।

আমরা শারীরিক ভাবে অসুস্থ হলে শুরুতেই কি ডাক্তারের কাছে যাই পরামর্শ নিতে? না, যাই না। আগে আমরা নিজেরা সাধারণ কিছু ওষুধ খেয়ে চেষ্টা করি সেই রোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার। কিন্তু সেসব বিদ্যা বিফলে গেলে আমরা ছুটে যাই ডাক্তারের কাছে।

ঠিক তেমনই আমাদের জীবনে বহু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় আমাদের। আমরা যখন নিজের নিজেদের বুদ্ধিতে সেই সমস্যাগুলো থেকে মুক্তি পেতে পারি না , ঠিক তখনই আমরা স্মরণাপন্ন হই কোনো বিশেষজ্ঞের কাছে, যাদের পেশাগত ভাবে Astrologer বলা হয়। আমরা জ্যোতিষরা সেই সমস্যায় পড়া মানুষদের জন্মকুন্ডলী বিচার করে সমস্যার মূল উৎসকে নির্ধারণ করি এবং তার সমাধান করি, ঠিক একজন ডাক্তারের মতো।

সমস্যা ছাড়াও আমরা জ্যোতিষীর দ্বারস্থ হই জীবনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে আগাম পূর্বাভাস পেতে। যেমন, পড়াশোনা কেমন হবে? কোন বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করলে ভালো হবে? পরীক্ষায় Result কেমন হবে? বিদেশে পড়তে যেতে পারবে কিনা? চাকরি হবে নাকি ব্যবসা? হলে কবে হবে ও কেমন হবে? অর্থনৈতিক অবস্থা কেমন থাকবে? কর্মসূত্রে বিদেশ যেতে পারবেন কিনা? বিয়ে কবে হবে? বিবাহিত জীবনে কেমন কাটবে? সন্তান যোগ কবে? বিদেশভ্রমণ হবে কিনা? নিজের সম্পত্তি হবে কিনা? ইত্যাদি অসংখ্য প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার আশায় মানুষ একমাত্র জ্যোতিষশাস্ত্রের উপরেই ভরসা করেন, কারণ একমাত্র এই শাস্ত্রের দ্বারাই আগাম এইসকল প্রশ্নের উত্তর আমরা পেতে পারি।

কোন জ্যোতিষ ব্যক্তিত্ব আপনার ভরসা বা বিশ্বাসের যোগ্য তা আপনি বুঝবেন কি করে?

সমস্যায় পড়লেই আমরা খুঁজি Who is the Best Astrologer? জ্যোতিষীর কাছে যাওয়ার আগে আমরা Best Astrologer কেই খুঁজি। যাতে আমরা Best astrological guidance পেতে পারি তার থেকে। আপনার ভরসা বা বিশ্বাসের যোগ্য সেই ব্যক্তিই হতে পারবেন যিনি আপনার জন্মকুন্ডলীটি বিচার করে আপনার জীবনের এমন কিছু তথ্য আপনাকে জানাবেন অথবা আপনার সাথে ঘটে যাওয়া কিছু ঘটনার সম্পর্কে আপনাকে বলতে সক্ষম হবেন। আপনার সমস্যার কথা জেনে নিয়ে সমাধানের পথ বলে দেওয়ার কাজ জ্যোতিষীর নয়। এছাড়াও যিনি আপনাকে বিভ্রান্ত না করে সঠিক সমাধানের পথ দেখাবেন তিনিই প্রকৃত জ্যোতিষ।

সাধারণ মানুষ সমস্যার সম্মুখীন হলে তবেই আসেন জ্যোতিষীর কাছে। কেউই সমস্যায় জর্জরিত হবার আগে খুব একটা আসেন না। বিপদের সম্মুখীন হওয়ার দরুন স্বভাবতই মানুষ দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হয়ে পড়েন। তাই কোনো সৎ জ্যোতিষ ব্যক্তিত্ব কখনোই সমস্যা কবলিত মানুষটির দুর্বলতার সুযোগ নেবেন না। বরং সেখান থেকে কিভাবে তিনি উদ্ধার পাবেন, সেই পথ’ই তিনি দেখাবেন।

আমি নিজে একজন পেশাগত জ্যোতিষী হবার দরুণ আপনাদের এইটুকু বলতে পারি, আপনি যতই দুশ্চিন্তাগ্রস্থ হোন না কেন, কোন জ্যোতিষ ব্যক্তিত্ব আপনার বিশ্বাসের মর্যাদা দেবেন তা বিচারের দায়ভার কিন্তু সম্পূর্ণ আপনার ওপরেই বর্তায়। তাই নিজেদের বুদ্ধিমত্তাকে গুরুত্ব দিন সঠিক জ্যোতিষী নির্ধারণের সময়। না’হলে আপনাকেই ঠকতে হতে পারে।

আমি একজন জ্যোতিষী হয়েও আপনাদের এই কথাগুলো বলার কারণ হলো, আমার এই পেশাতে আসার মুখ্য উদ্দেশ্যই হলো মানুষকে তার সমস্যার সমাধানের সঠিক পথ দেখানো, সঠিক প্রতিকার প্রতিবিধানের দ্বারা। আমি ব্যক্তিগতভাবে চাই, আর একজন মানুষও যেন কোনো জ্যোতিষীর দ্বারা প্রতারিত না হন, তাতে জ্যোতিষ শাস্ত্রের সম্মানহানি হয়, কিছু স্বার্থান্বেষী জ্যোতিষীর জন্য সকল জ্যোতিষ পেশাজীবীদের সম্মানহানি হয়। কিন্তু আমি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি আজকের দিনেও অনেক সৎ জ্যোতিষ পেশাজীবীরা রয়েছেন। যারা প্রত্যেকেই চান জ্যোতিষশাস্ত্রের সঠিক প্রয়োগ দ্বারা সাধারণ মানুষেরা যেন তাদের সমস্যা থেকে সমাধানের পথ দেখেন। আপনাদের কর্তব্য চোখ-কান খোলা রেখে, নিজের বুদ্ধিমত্তাকে কাজে লাগিয়ে আপনার ভরসার মানুষটিকে খুঁজে নেওয়া। এরপর শুধু খুঁজে নিলেই চলবে না, আপনার বিশ্বাসযোগ্য সেই জ্যোতিষ ব্যক্তিত্বের পরামর্শ আপনাকে পালন করতে হবে, তাহলে অবশ্যই আপনি আপনার সমস্যা থেকে সমাধানের পথ পেয়ে যাবেন।

একটা কথা অবশ্যভাবে মনে রাখবেন, কোনো জ্যোতিষীই জোর করে কোনো Client কে তার কাছে আসতে বাধ্য করেন না। আপনারা Client রা, অর্থাৎ সাধারণ মানুষরাই কিন্তু আসেন নিজের পছন্দের জ্যোতিষ ব্যক্তিত্বের কাছে। কিন্তু তার কাছে কোনো কারণে প্রতারিত হলে আপনারাই কিন্তু সর্বপ্রথম দোষারোপ করেন সেই জ্যোতিষীকে। অথচ এটা একবারও ভাবেন না উনি আপনাকে আপনার বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যাননি ওনার Chamber এ। আপনি নিজে থেকে ওনার কাছে গিয়েছিলেন আপনার সমস্যা থেকে সমাধানের পথ পেতে। তাই একটা কথা মনে রাখবেন সঠিক জ্যোতিষ বিচার করার গুরুদায়িত্ব কিন্তু সম্পূর্ণ আপনার ওপর বিদ্যমান।

REMEDIAL CORRECTIONS এর মুখ্য উদ্দেশ্য কি?

আমরা জ্যোতিষীর কাছে যাই ভাগ্যবিচারের উদ্দেশ্যে, জীবনে চলার পথে কোনো সমস্যা এলে তার সমাধানের উদ্দেশ্যে। ভাগ্য অর্থাৎ সময়ের বিচার। সময়কে সাধারণত আমরা দু’ভাবে দেখি, ভালো সময় ও খারাপ সময়। কখন ভাল সময়, আর কখন খারাপ সময়, কোন ভালো সময়ে কি কি ভালো হতে, কতটা ভালো হতে পারে, আর কোন খারাপ সময়ে কি কি খারাপ হতে পারে, কতটা খারাপ হতে পারে তা আমরা একজন জ্যোতিষীর থেকেই জানতে পারি। কিন্তু এতো গেল জ্যোতিষ বিচার পর্ব।

 

এবারে আসি, এই ভালো সময়ে তো আমরা সব ভালোই পাবো, কিন্তু খারাপ সময়ে আমরা যেসব সমস্যা বা বিপদের সম্মুখীন হবো তার থেকে মুক্তিলাভ কি সম্ভব? না, সম্পূর্ণ মুক্তিলাভ কখনোই সম্ভব নয়, তাহলে তো ভাগ্যের পরিবর্তন হয়ে যেত। কিন্তু ঈশ্বর ছাড়া কেউই পারেন না ভাগ্যের পরিবর্তন করতে, সে ক্ষমতা কোনো জ্যোতিষ পেশাজীবীর তো নেইই, এমনকি কোনো মানুষেরই নেই।

 

জ্যোতিষীরা কেবলমাত্র খারাপ সময়ের কুপ্রভাবের মাত্রা কমানোর চেষ্টা করে থাকেন প্রতিকার দ্বারা। আপনার জন্মকুন্ডলিতে যে অশুভ দোষ সৃষ্টি হয়েছে তার ক্ষমতা হ্রাসের চেষ্টা করা হয়ে থাকে প্রতিকারের মাধ্যমে। এবং ভালো সময়ে আমরা যেন তার সঠিক প্রয়োগ করে আমাদের জীবনের সব ভালোটুকু পেতে পারি তার জন্যেও প্রয়োজন প্রতিকার। এই বিষয়টি একটু বোঝানো যাক। আমাদের সকলের জন্মকুণ্ডলীতেই খারাপ যোগের সাথে অনেক ভালো যোগ ও থাকে। কিছু ভালো যোগের প্রভাবে যেমন কিছু খারাপ দোষের কুপ্রভাব কমে যায় ঠিক তেমনই কিছু খারাপ গ্রহদোষের প্রভাবে জন্মকুণ্ডলীতে বেশ কিছু ভালো যোগ থাকা সত্ত্বেও তা সঠিকভাবে কাজ করতে সক্ষম হয়না, তাই আমরা আমাদের জীবনে সেই শুভ যোগের সুফল সঠিক মাত্রায় পেতে পারিনা। তাই সেক্ষেত্রেও প্রতিকারের গুরুত্ব অপরিসীম।

Client হিসেবে আপনার কর্তব্য কি?

দেখতে দেখতে 10 বছরের ওপর জ্যোতিষ practice করছি, সেই সূত্রে বহু মানুষের জ্যোতিষ বিচার করেছি। সেই অভিজ্ঞতার থেকেই খুব মূল্যবান কিছু বিষয় আপনাদের সকলের সামনে উপস্থাপনা করতে চাই। আমরা সাধারণ মানুষরা এবং তার সাথে আমরা জ্যোতিষীরাও যথেষ্ট চিন্তিত যে আমাদের কর্তব্য ঠিক কি কি হতে পারে। কিন্তু আমরা একটা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ভুলে যাই যে, কর্তব্য পালন কেবলমাত্র জ্যোতিষীরই দায়িত্ব নয়, সেই সঙ্গে Client দেরও দায়িত্ব।

 

প্রথম গুরুদায়িত্ব হলো আপনার ভরসাযোগ্য বা বিশ্বাসযোগ্য জ্যোতিষ ব্যক্তিত্ব নির্ধারণ করা।

এবং তারপর তিনি যেভাবে যা যা Suggestions, Remedial Corrections করতে বলছেন সেগুলোকে সেই সেই ভাবে আপনার সাধ্যমত পালন করা। তাহলে অবশ্যই আপনি সুফল পেতে বাধ্য।

 

আমি অনেক’কেই বলতে শুনেছি, আমি তো অনেক জ্যোতিষীকে দেখলাম, কিন্তু আমার সমস্যার কোনো সমাধান আজ পর্যন্ত হলো না। এবার প্রশ্ন আসে কেন একজন মানুষকে অনেক জ্যোতিষীর মুখাপ্রেক্ষি হতে হবে? সকলের কাছেই কি উনি প্রতারিত? উনি কি আদৌ কোনো জ্যোতিষীর পরামর্শ মেনে চলার চেষ্টা করেছেন? ভালো করে খোঁজ নিলে জানা যায়, সেই সকল মানুষজন বিভিন্ন জ্যোতিষীর কাছে কেবলমাত্র ঘুরেই যান। কিন্তু হয় কারোর থেকে পরামর্শ নিয়ে তা সঠিকভাবে পালন করেননি নাহলে নিজেই নিজের বুদ্ধিমত কিছু করতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছেন। আর নিজের দোষ না দেখে সম্পূর্ণ দায়ভারটাই জ্যোতিষীর উপর চাপিয়ে দেন।

 

জ্যোতিষ বিষয়টি Applied Subject, যার যেমন দর্শন, যার যেমন জ্ঞান, সেই অনুযায়ী তারা নিজেদের পেশাগত অভিজ্ঞতাকে পাথেয় করে Practice করেন, তাই প্রত্যেকেই স্বতন্ত্র। সেই কারণে যত বেশি সংখ্যক জ্যোতিষের কাছে যাবেন, আপনি তত বেশি confuse হয়ে পড়বেন। তাতে বরং আপনি আরো বেশি করে সমস্যায় পড়বেন। তাই কোনো একজন জ্যোতিষ ব্যক্তিত্বকে ভরসা করুন, তাঁর প্রতি dedicated থাকুন, তাঁর guidance মেনে চললে আপনি তার দেওয়া প্রতিকারে উপকার পেতে বাধ্য।

 

একটা বিষয় মনে রাখবেন, শরীরের কোনো জায়গায় Operation করতে হলে সেটা যেমন কোনো অভিজ্ঞ Doctor কেই করতে হয়, নিজে করে নেওয়া যায় না, ঠিক তেমনই মানুষের জীবনে কোনো সমস্যা হলে এবং তা নিজের দ্বারা সমাধানে অক্ষম হলে কোনো অভিজ্ঞ Astrologer এর পরামর্শ মেনেই চলতে হয়, সেখানে নিজের ইচ্ছামত কিছু করলে কাঙ্খিত ফললাভ কখনোই সম্ভব নয়। কারণ যে ব্যক্তি যে বিষয়ে expert, সে Doctor হোক কিংবা Astrologer, তার পরামর্শ মেনে চললে তবেই সেখানে সমাধান সম্ভব।

Read the article of Best Astrologer in Kolkata Astrologer Debraj Acharya on Importance Of Kundali Matching For Marriage In Astrology

Remedial Corrections - QUALITY or QUANTITY - Which is the Most Important? Do Astrological Remedies really Work?

প্রতিকার – অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। যার ওপর অধিকাংশভাবে নির্ভর করে আপনি আপনার সমস্যাকে সমাধানে রূপান্তরিত করতে পারবেন নাকি আরো বেশি করে সমস্যায় জড়িয়ে পড়বেন। যে বস্তু-সামগ্রীর গুরুত্ব এত বেশী, সেটিই কিন্তু চূড়ান্তভাবে অবহেলিত, সে জ্যোতিষী হোক কিংবা Client উভয়ক্ষেত্রেই এই প্রতিকার বিষয়টি একদম “ছেলের হাতের মোয়া”।

বেশ কিছু মানুষের ধারণা যে, জ্যোতিষীর কাছে গেলেই বুঝি তিনি কোনো ম্যাজিক করে সব সমস্যা দূর করে সমাধান করে দেবেন। কিন্তু এটা মনে রাখতে হবে কোনো জ্যোতিষই কিন্তু অলৌকিক /  আদিদৈবিক / আদিভৌতিক / অতীন্দ্রিয় ক্ষমতাসম্পন্ন মানুষ নন। প্রত্যেকেই সাধারণ মানুষ। তারা জ্যোতিষশাস্ত্র অধ্যয়ন করেছেন, জ্যোতিষশাস্ত্র চর্চা করেন, তাই জ্যোতিষের (আপনার জন্মকুন্ডলীর) code language টি কেবলমাত্র উনারাই Decode করতে পারেন।

জ্যোতিষী তো সমস্যা সমাধানের পথ বলে দেবেন, কিন্তু যে প্রতিকার দ্রব্য দ্বারা আপনি আপনার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন সেই প্রতিকার দ্রব্যের গুণাবলী সম্পর্কে আমরা কিন্তু এতটুকুও concern নই। আমরা ভেবেও দেখিনা, How do Astrological Remedies work? আমরা ভেবেও দেখিনা যে, সেই প্রতিকার দ্রব্যের এমন কিছু গুণ থাকা কর্তব্য যা ধারণের ফলে ধীরে ধীরে আমরা আমাদের সমস্যা থেকে মুক্তি পাবো। অর্থাৎ, প্রতিকারের Quality, which is the most important to get rid of any problem.

অনেক জ্যোতিষীকে দেখেছি, অসংখ্য প্রতিকার ধারণের পরামর্শ দেন, অথচ একটিও সঠিক গুণমানযুক্ত প্রতিকার তার মধ্যে থাকে না। ফলে কোনো কাঙ্খিত ফললাভ সেই প্রতিকারে পাওয়া সম্ভব নয়।

অসংখ্য প্রতিকার কারোর ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য নয়, বরং সঠিক জ্যোতিষ বিচার করে, একটি থেকে দুটি, কিছু ক্ষেত্রে বড়োজোর তিনটি উচ্চ গুণমানযুক্ত প্রতিকার ধারণেই মানুষ তার কাঙ্খিত ফললাভ করে। কারণ ওই একটি কিংবা দুটি উচ্চ গুণমানযুক্ত প্রতিকার ধারণেই সব দিক cover করে দেয়। অর্থাৎ, জ্যোতিষ প্রতিকারে Quality মুখ্য ভূমিকা পালন করে, Quantity নয়।

অথচ আমরা এই বিষয়টিকে একেবারেই গুরুত্ব দিতে রাজি নই। আর এই কারণেই আমরা জ্যোতিষ প্রতিকারে কোনো ফললাভ করতে পারিনা, স্বভাবতই আমাদের মনে হতে থাকে আমরা ঠকে গেলাম। কিন্তু “গোড়ায় গলদ” টা আমরা কেউ ভেবেও দেখিনা।

এবার যে সকল জ্যোতিষীরা উচ্চগুণমানযুক্ত প্রতিকার দিয়ে থাকেন সেখানে মানুষ ভাবেন, এতো টাকা খরচের প্রয়োজনীয়তা কি? সস্তার কোনো প্রতিকার করলেই তো হয়ে যায়। কিন্তু এটা তারা একবারও ভাবেন না যে প্রতিকার দ্রব্য সস্তায় পাওয়া যায় তা ধারণ করলে কিভাবে উপকার পাওয়া সম্ভব? আর যার Quality আছে তার মূল্য অবশ্যই বেশি হবে, আর সেটি ধারণ করলেই উপকার পাওয়া সম্ভব, নাহলে কোনোভাবেই নয়।

যেমন ধরুণ কোনো একটি Quality রত্ন নিতে খরচ পড়লো 30000/-, সেখানে আপনি দেখলেন 10000/- এর অর্থাৎ নিম্নমানের রত্নটি নিলে আপনার বেশকিছু টাকা save হচ্ছে। তাই আপনি সেটি নিয়েই ভাবলেন আপনার প্রতিকার ধারণ হয়ে গেছে। কিন্তু না! ওই নিম্নমানের রত্নধারণে আপনি আপনার কাঙ্খিত ফললাভ কখনোই পাবেন না, তাতে আপনার পুরো 10000/- টাকাই নষ্ট হলো।

তাই আমি ব্যক্তিগতভাবে আমার সকল client কেই বলি, যদি প্রতিকার ধারণ করতেই হয় তাহলে সঠিক গুণমান সম্পন্ন রত্নই ধারণ করবেন নচেৎ নয়। কারণ আমি চাইনা মানুষ তার কষ্টার্জিত অর্থ ভুল জায়গায় দিয়ে তা নষ্ট করুক, বরং সঠিক এবং উচ্চগুণমান সম্পন্ন প্রতিকার দ্রব্যের জন্য বেশি টাকা খরচ করা শ্রেয় কারণ সেটির Return of Investment আছে, কিন্তু নিম্নমানের প্রতিকার দ্রব্যের ক্ষেত্রে তা নেই।

আপনারা যদি নিজেরা সচেতন হতে পারেন তাহলেই আপনারা জ্যোতিষীয় প্রতিকারে কাঙ্খিত ফললাভ করতে বাধ্য। তাই এরপর থেকে Quantity নয়, লক্ষ্য হোক Quality।

কার থেকে করবেন REMEDIAL CORRECTIONS? এবং কেন?

জীবনের সমস্যাগুলো থেকে উদ্ধার পেতেই আমরা দ্বারস্থ হই Professional Astrologer এর কাছে। আর সেই সমস্যার সমাধান একমাত্র সম্ভব Remedial Corrections এর মাধ্যমে। তাই সমাধানের জন্য Remedy হলো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক গুণমানসম্পন্ন প্রতিকার আপনাকে কোনো অভিজ্ঞ মানুষই দিতে পারবেন।

চিকিৎসাশাস্ত্রে যেমন রোগ নির্ধারণের সাথে সাথে রোগ নিরাময়ের উপায় সম্বন্ধেও জানতে হয়, ঠিক তেমনই জ্যোতিষশাস্ত্রেও জন্মকুন্ডলী বিচার করে মানুষের জীবনের বিভিন্ন ঘটনাবলীর বিচার, শুভ-অশুভ যোগ-দোষের বিচার, সুসময়-দুঃসময়ের বিচারের সাথে সাথে সমস্যার সমাধান সম্পর্কেও জ্ঞানলাভ করতে হয়। শুধু তাই নয়, কোন কোন ক্ষেত্রে কি কি ধরনের প্রতিকার প্রয়োগ করলে সমস্যামুক্তি ঘটবে সেই জ্ঞানও থাকা বাঞ্ছনীয়।

আমাদের বুঝতে হবে মানুষ কোনো যন্ত্র নয় যে তার জীবনের সমস্যার সমাধানের কোনো গতে বাধা নিয়ম থাকবে। প্রতিটা মানুষের জন্মকুন্ডলী যেমন প্রত্যেকের থেকে আলাদা ঠিক তেমনই প্রতিকারের ক্ষেত্রেও ঠিক তাই। যেমন ধরুন কোনো দম্পতি তাদের দুজনের জন্মকুন্ডলী বিচারের জন্ম জ্যোতিষীর কাছে গেছেন। প্রতিকার স্বরূপ দেখা গেলো সেই জ্যোতিষীর দেওয়া প্রতিকার অনুযায়ী দুজনের ক্ষেত্রেই একটি প্রতিকার common। তার মানে এই নয় দুজনের ক্ষেত্রে একই মানের প্রতিকার কার্যকরী হবে। সমস্যার গভীরতা অনুযায়ী প্রতিকারের গুণমানের ওপর ও সেটি নির্ভর করবে। কার ক্ষেত্রে কিরকম গুণমানের প্রতিকার প্রয়োজন সেটিও খুব গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সেটি সঠিক না হলে প্রতিকার দ্বারা কাঙ্খিত ফললাভ অসম্ভব, ঠিক যেমন ওষুধের dose এর হয়, সঠিক dose এর ওষুধ না খেলে রোগ নিরাময় হয় না, তেমন। ওষুধ এর ক্ষেত্রে যদিও বা দেরিতে সেটি কাজ করতে পারে, কিন্তু জ্যোতিষের প্রতিকারে তা হলে ফললাভ প্রয়োজনের থেকে কম হবেই।

তাই প্রতিকারের গুণমান নির্ধারণে সক্ষম জ্যোতিষীর থেকেই প্রতিকার ধারণ অবশ্য কর্তব্য।

রত্ন প্রতিকারের ক্ষেত্রে অনেকে মনে করেন কোনো বড় দোকান থেকে বা রত্ন ব্যবসায়ীর থেকে রত্ন নিলেই বোধ হয় সঠিক মাত্রায় ফল পাওয়া যায়। কিন্তু না, এই ধারণা একদমই ভুল। এর সবচেয়ে বড় কারণ, তারা কেউ জ্যোতিষ জানেন না। তাই কার ক্ষেত্রে Specific কোন প্রতিকারটি কাজ করবে সেটি বিচার করা তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। আর আমার এই বক্তব্যটির অভিজ্ঞতা আমার নিজেরই হয়েছে। আমারই বেশ কয়েকজন Client ঠিক এই ভুলটিই করেছিলেন, এবং কোনো কাজ না পেয়ে পুনরায় তারা আমার থেকে আমার guidance এই প্রতিকার নিয়ে যান এবং উপকার পাওয়ার পর আমাকে feedback দেন। কিন্তু এই কাজ যারাই করবেন তাদের একটা কথা মনে রাখতে হবে ভুল জায়গা থেকে প্রতিকার করলে যেমন তারা কোন ফল পাবেন না ঠিক তেমনই তাদের বেশ কিছু অর্থনষ্টও হবে।

ব্যক্তিগতভাবে স্বীকার করতে কোনো দ্বিধা নেই যে, সঠিক গুণমানযুক্ত প্রতিকার দিতে পারি বলেই সারা ভারতবর্ষব্যাপী আমার অসংখ্য Client রয়েছেন, যারা আমার কাছে এসে বা আমার থেকে Online Courier Service এর মাধ্যমে প্রতিকার নিয়ে আজ উপকৃত এবং তার কিছু প্রমাণ আপনারাও দেখতে পান আমার Google Profile এ, একাধিক মানুষ তাদের কাঙ্খিত ফললাভ করে, তাদের সমস্যা থেকে মুক্তি পেয়ে, তাদের মূল্যবান feedback আমাকে দিয়েছেন।

আমি Astrologer Debraj Acharya, এই পুরো Article এ যা বলেছি তা সম্পূর্ণ আমার অভিজ্ঞতালব্ধ। তাই নিজের অভিজ্ঞতার ওপর বিশ্বাস রেখে একটাই কথা বলতে পারি, কেবলমাত্র আপনার বিশ্বাসযোগ্য জ্যোতিষীর থেকেই প্রতিকার নিন, তাঁর যদি প্রতিকার বিষয়ে সঠিক জ্ঞান থাকে তাহলে আপনি অবশ্যই উপকার পেতে বাধ্য।

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Please follow and like us:
  • Related Tags:

Leave a comment